আজ ২৮শে সেপ্টেম্বর, ২০২২, সকাল ৬:৩৪

কুমেক হাসপাতালে নাইট্রাস গ্যাস সংকটে অস্ত্রোপচার ব্যাহত।

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin

নেকবর হোসেন।

কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে (কুমেক) নাইট্রাস অক্সাইড গ্যাসের তীব্র সংকটের কারণে অস্ত্রোপচার ব্যাহত হচ্ছে। গ্যাস সংকটের কারণে অস্ত্রোপচার না করেই রোগীকে ফিরিয়ে দিচ্ছেন চিকিৎসকরা। এতে সীমাহীন ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে রোগী ও স্বজনদের। তবে করোনার প্রভাবে এ সংকট সৃষ্টি হয়েছে বলে দাবি গ্যাস সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠানের।

হাসপাতাল সূত্র জানায়, স্পেকট্রা অক্সিজেন লিমিটেড নামের একটি প্রতিষ্ঠান কুমিল্লা মেডিকেলে অক্সিজেন ও নাইট্রাস অক্সাইড সরবরাহ করে আসছিল। তবে গত তিনমাস ধরে স্পেকট্রা নিয়মিতভাবে নাইট্রাস অক্সাইড গ্যাস সরবরাহ করছে না। হাসপাতালটিতে প্রতি মাসে অন্তত ৩০ কেজির ২৫টি নাইট্রাস অক্সাইড গ্যাসের সিলিন্ডার লাগে। সে ক্ষেত্রে গত দুই মাসে সরবরাহ করা হয়েছে মাত্র ৮টি সিলিন্ডার। যা প্রয়োজনের তুলনায় নগণ্য।
গ্যাস সংকটে হাসপাতালে অস্ত্রোপচার কমে গেছে। অনেক সময় নাইট্রাস অক্সাইড ছাড়াই অস্ত্রোপচার করছেন চিকিৎসকরা। তবে কুমিল্লায় বেসরকারি কোনো হাসপাতালে নাইট্রাস অক্সাইডের স্বল্পতা নেই বলে জানা গেছে।

এ বিষয়ে স্পেকট্রা অক্সিজেন লিমিটেডের কুমিল্লা ডিপোর ডিস্ট্রিবিউশন কর্মকর্তা মো. তাওহিদুর রহমান বলেন, করোনাকালে বিদেশ থেকে কাঁচামাল আনতে না পারায় চাহিদামতো গ্যাস সরবরাহ করা যায়নি। তারপরও আমরা চেষ্টা করছি তাদের সাপোর্ট দেওয়ার জন্য। জুলাই মাসে দুটি এবং চলতি মাসে (আগস্ট) মাসে ছয়টি (সিলিন্ডার) দিয়েছি। আশা করছি দু-একদিনের মধ্যে এ সংকট আর থাকবে না।
নাম প্রকাশ না করার শর্তে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের এক বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক জানান,নাইট্রাস অক্সাইড গ্যাস সরবরাহে অনিয়ম দীর্ঘদিনের। যে কারণে অনেক জরুরি অস্ত্রোপচার করা যাচ্ছে না। ফলে চিকিৎসকদের বদনামের ভাগ নিতে হচ্ছে।

কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের (কুমেক) পরিচালক মো. মহিউদ্দিন গ্যাস সংকটের বিষয়টি স্বীকার করে বলেন, সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠানের উৎপাদন ব্যাহত হওয়ার কারণে এমনটি হয়েছে। আশা করছি চলতি সপ্তাহের মধ্যে নাইট্রাস অক্সাইডের সংকট থাকবে না।

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin

আরো পড়ুন

সর্বশেষ খবর

পুরাতন খবর

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০